September 26, 2021

Sylhet Amar Sylhet

www.sylhetamarsylhet.com

দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতির পেছনে সিন্ডিকেট ও বড় বড় দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন এখন ফরজে আইন—– দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরাম

দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে এক জরুরী সভা ১০ ফেব্রুয়ারি বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় মধুবন সুপার মার্কেটস্থ একটি রেস্তোরায় অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় ৪ জানুয়ারি দৈনিক প্রথম আলোয় প্রকাশিত ভিসা জালিয়াতিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তা জাকির হোসনের ৩টি ব্যাংক হিসাবে প্রায় ২৩ কোটি টাকা লেন-দেন। ১৯ জানুয়ারি একই পত্রিকায় স্ট্যান্ডার্ট এশিয়াটিক ওয়েল লিমিটেডের পরিচালক দুদক দ্বারা তদন্তে প্রমাণিত ৮১ কোটি টাকা আত্মসাৎ। ৩ জানুয়ারি একই পত্রিকায় দুর্নীতিতে লেজেগোবরে মাল্টিমিডিয়া প্রকল্পে সম্মানির নামে লাখ লাখ টাকা আত্মসাৎ, বিগত ২০২০ সালের ১৯ ডিসেম্বর একই পত্রিকায় মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্ট সম্পদে অনেক, আয় সামান্য, ২০ ডিসেম্বর একই পত্রিকায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে পল্লী সড়কের গুরুত্বপূর্ণ সেতু প্রকল্পে আন্দাজের মাশুল ২৫৩১ কোটি টাকা, গত ৭ জানুয়ারি একই পত্রিকায় শহীদ তাজ উদ্দিন মেডিকেল কলেজের কেনা-কাটায় কেলেঙ্কারি, ৬ জানুয়ারি দৈনিক মানব কন্ঠে প্রকাশিত পানি সম্পদের এলডিডিপি প্রকল্পে কাগুজে গাড়ীতে ব্যয় ২০০ কোটি টাকা।
ভয়াবহ এইসব দুর্নীতির সংবাদের তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করে বলা হয়, গণমাধ্যমে প্রকাশ গত ১০ বছরে ১০ হাজার কোটিপতির জন্ম হয়েছে। এর বেশির ভাগেরই বৈধ আয়ের কোন ব্যবস্থা নেই। এর মধ্যে ১ হাজার কোটিপতির বিরুদ্ধে দুদকে অভিযোগ দাখিল হলেও এদের বিরুদ্ধে দৃশ্যমান কোন এ্যাকশন নেই।
সম্প্রতি দুদক চেয়ারম্যান ২০১৯ সালের যে প্রতিবেদন মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে জমা দিয়েছেন, তাতে দুর্নীতির ভয়াবহ চিত্র প্রকাশ পায়নি। দুর্নীতি বন্ধে দুদক এর দেয়া সুপারিশেও আইন সংস্কারের কথা বলা হয়নি। এতে প্রমাণিত হয় এই প্রতিষ্ঠান আজ্ঞাবহ প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। দুদকের প্রচার পত্রে দেখা যায়, নিচের পর্যায়ের দুর্নীতির খবর দেয়ার তাগিদ আছে, উপর পর্যায়ের নেই। এতে প্রমাণিত ছোট লোকের দুর্নীতি পাপ আর বড় লোকের দুর্নীতি মাফ। জাতি ২০০৮ সাল প্রণিত দুদক দেখতে চায় এবং শুদ্ধি অভিযান আরো জোরদার চায়।
চাল-তেলে সহ দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতি তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তারা বলেন, ভোজ্য তেলের দাম ৯ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। গণমাধমে প্রকাশিত দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতির পেছনে সিন্ডিকেটরাই দায়ী। এই দায়ীদের বিরুদ্ধে একশনমূলক ব্যবস্থা নেই কেন। তারা কি আইনের ঊর্ধ্বে? করোনার প্রভাবে দেশে দারিদ্র বেড়েছে। এই সময় তেল, চাল সহ দ্রব্য মূল্যে দাম বৃদ্ধিতে সাধারণ মানুষ অসহায় হয়ে পড়েছেন।
সভায় আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি দুর্নীতিবাজদের ব্যাপারে মৃত্যুদন্ডের বিধান, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দুর্নীতি রোধে দ্রুত ন্যায়পাল চালু, চাল-তেলের মূল্য সহ দ্রব্যমূলের দাম কমানোর দাবীতে বিকাল ৩টায় কোর্ট পয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশে কর্মসূচি গৃহীত হয়।
দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী নাছির উদ্দিনএর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মকসুদ হোসেনের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সিনিয়র সহ সভাপতি ইকবাল হোসেন চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবুল হোসাইন চতুলী চেয়ারম্যান, মামুন রশীদ এডভোকেট, প্রচার সম্পাদক মীর আব্দুর করিম পাখী মিয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল মুতাওয়ালী ফলিক, কয়েছ আহমদ সাগর, আমিরুল হোসেন চৌধুরী আমনু, রফিকুল ইসলাম শিতাব, মাওলানা কাজী ইব্রাহিম, যুব শ্রমিক নেতা আদনান খান হেলাল, দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইসমত ইবনে ইসহাক সানজিদ, সিনিয়র সহ সভাপতি ইমাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আমীন তাহমিদ, সমাজসেবা সম্পাদক সৈয়দ নুর আহমদ জুনেদ, সৌদী প্রবাসী সুহেল আহমদ প্রমুখ।
সভায় যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইসমত ইবনে ইসহাক সানজিতের মামতো ভাই ও আমেরিকা প্রবাসী নেতা জুয়েল চৌধুরীর ছেলে জিমাম চৌধুরীর অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে মরহুমের রূহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।
সভাপতির বক্তব্যে নাছির উদ্দিন এডভোকেট বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে বক্তব্য আছে, দুর্নীতি বন্ধে বড় বড় রাজনৈতিক দলগুলোর কোন কর্মসূচি নেই। কারণ উল্লেখ করে বলেন, তারা সেখানে একজোট। তাই সচেতন জনগণকেই রাজপথে নামতে হবে। আমি মনেকরি দ্রব্য মূল্যের ঊর্ধ্বগতির পেছনে সিন্ডিকেট ও বড় বড় দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন এখন ফরজে আইন।