October 23, 2021

Sylhet Amar Sylhet

www.sylhetamarsylhet.com

করোনা কালেও চিকিৎসাসেবা দিয়ে যাচ্ছে সিলেট মাউন্ট এডোরা হসপিটাল

মহামারী করোনা ভাইরাস চলাকালীন সময় চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছে সিলেটের মাউন্ট এডোরা হসপিটাল। করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পুরো বিশ্ব যখন দিশেহারা তখন হসপিটাল কর্তৃপক্ষ কিংকর্তব্যবিমূঢ়। বর্তমান সময়ে সাধারণ রোগী বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন, অনেক হাসপাতাল আতংকিত হয়ে চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ করেছে। কিন্তুু করোনাকালীন সময়ে সিলেটবাসীর কোভিট-১৯ সহ সকল রোগের চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে মাউন্ট এডোরা হসপিটাল।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে যেখানে হাসপাতালগুলো সেবা দিতে তটস্থ, সেখানে সিলেটে সমন্বিত সেবার উদ্যোগ নিয়ে এগিয়ে এসেছে বেসরকারি এই হসপিটাল। বেসরকারি বড় এই মাউন্ট এডোরা হাসপিটালটি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

হসপিটালের বহির্বিভাগে ২৪ ঘন্টা জ্বর, সর্দি, কাশি ও শ্বাসকষ্টের রোগীসহ সকল ধরনের রোগিদেরকে চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন অভিজ্ঞ চিকিৎসকবৃন্দ। সকাল ১০ টা থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত চেম্বারে রোগী দেখছেন ডাক্তাররা। এই নির্ধারিত সময়ের পরও রোগীদের স্বার্থে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

ইনডোর ও আউটডোরে সকল প্রকার রোগীদের যত্নসহকারে রিসিভ করা হচ্ছে। রোগী ও চিকিৎসকের নিরাপত্তার জন্য বহির্বিভাগে নিরাপত্তার ব্যাবস্থ রয়েছে। জ্বর, সর্দি, শ্বাসকষ্টের রোগীদের জন্য ফিভার কর্ণার ও সাধারণ রোগীর জন্য নরমাল বহির্বিভাগ। মেইন রোড থেকে রোগীদের মাস্ক পড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে হসপিটালে প্রবেশের পূর্বে সাবান ও স্যানিটাইজার দ্বারা জীবাণুমুক্ত করে প্রাথমিক স্বাস্থ্যগত তথ্য সংগ্রহ করে রোগীদেরকে পৃথক পৃথক চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন ডাক্তারবৃন্দ।

যে সকল রোগীকে করোনা (কোভিড-১৯) সন্দেহ করা হচ্ছে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাদেরকে হসপিটালের আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি কর হয়। পরবর্তীতে কোন রোগীর কোভিড-১৯ পজিটিভ হলে তাদেরকে শহীদ শামসুদ্দিন আহমেদ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এছাড়াও জ্বর, সর্দি, কাশি শ্বাসকষ্ট যে সকল রোগী হসপিটালে আসতে পারছেন না তাদের জন্য ২৪ ঘন্টা ফোনের মাধ্যমে চিকিৎসা পরামর্শ প্রদান করা হয়। স্বাস্থ্য সেবায় সিলেটবাসীর মনে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে মাউন্ট এডোরা হসপিটাল।

সময়ের সাথে প্রযুক্তির সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠানটি সকল প্রকার চিকিৎসা চাহিদা পূরণে সুনামের সাথে সেবা চালিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় কোভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের নিরলস সেবা কার্যক্রম।

করোনা ভাইরাস চলাকালীন সময় বিশ্ব যখন দিশেহারা, সেই মুহুর্তে প্রতিষ্ঠানের সুষ্ঠ ব্যবস্থাপনায়, হসপিটালের কর্মরত সকলের মনোবল বৃদ্ধির মাধ্যমে নিয়ম শৃঙ্খলা বজায় রেখে সেবা প্রদান করছে সকল রোগীদেরকে।

সরেজমিন দেখা যায়, হসপিটালের আগত রোগী, রোগীদের স্বজন, হসপিটালের কর্মরত সকলের সার্বিক নিরাপত্তার জন্য নেয়া হয়েছে অভিনব পদক্ষেপ। রোগী হসপিটালে প্রবেশ থেকে শুরু করে বিদায় পর্যন্ত মানা হচ্ছে সব ধরেন নিয়ম-কানুন। গৃহীত পদক্ষেপের কারণে ইতিমধ্যে দেশ ও দেশের বাহিরে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে মাউন্ট এডোরা হসপিটাল।

জ্বর, সর্দি, কাশি নিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করতে আসা সাইফুদ্দিন নাছির নামের এক ব্যাক্তি বলেন, বিভিন্ন হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা না পেয়ে নিরাশ হয়ে, বাড়িতে চলে আসি। পরে এক নিকট আত্মীয়ের পরামর্শে এই হসপিটালে আসি। এখানে কর্তৃপক্ষ ও ডাক্তার আমাকে যত্নসহকারে সতর্কতার সাথে চিকিৎসা সেবা দিয়েছেন। আমি মনে করি, মাউন্ট এডোরা হসপিটালের মত যদি সকল হাসপাতাল এভাবে দ্বায়িত্ব সহকারে চিকিৎসা দিত তাহলে, করোনা কেন আর বড় রোগে আক্রান্ত হলে মানুষ চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হতে পারবেন।

এ ব্যপারে মাউন্ট এডোরা হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মেডিসিন ও হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডাঃ কে এম আখতারুজ্জামান বলেন, সিলেট শহরে আমাদের হসপিটালের দুটি শাখা মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে। কোভিড-১৯ সহ সকল প্রকার চিকিৎসার জন্য দেশবাসীর প্রত্যাশা সকল বিপদে এভাবেই আন্তরিকতার সাথে মাউন্ট এডোরা হসপিটাল সেবার মাধ্যমে পাশে থাকবে।