সড়ক মেরামত না করায় মেয়রকে গাড়ির পেছনে বেঁধে ঘোরাল জনতা

গাড়ির পেছনে বেঁধে মেয়রকে ঘোরানো হচ্ছে। ছবি: সিসিটিভির ফুটেজ থেকে নেওয়া

ভোটের আগে প্রচারের সময় রাজনীতিকরা প্রতিশ্রুতির বন্যা বইয়ে দেন সাধারণ মানুষের কাছে। কিন্তু ভোটের পর সেই প্রতিশ্রুতি রাখেন না। এবার সেই অপরাধে মেয়রকে শাস্তি দিলেন জনতা। পিকআপ গাড়ির পেছনে দড়ি দিয়ে বেঁধে তাকে ভাঙা সড়কের উপর দিয়ে টেনে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘটনাটি ঘটে মেক্সিকোর বন্দর নগরী লাস মার্গারিটা শহরে।

বিবিসির খবরে বলা হয়, লাস মার্গারিটা শহর থেকে মেয়র নির্বাচিত হন এসক্যান্ডন হার্নান্ডেজ। নির্বাচনের আগে তিনি ঐ অঞ্চলের একটি ভাঙা সড়ক মেরামত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু জেতার পর সেই রাস্তা মেরামতের কোনো কাজ না হওয়ায় ক্ষুব্ধ বাসিন্দারা মাস চারেক আগে ভাঙচুর করেছিল মেয়রের অফিস। কিন্তু তাতেও কাজ না হওয়ায় সম্প্রতি তারা অফিস থেকে তুলে আনেন মেয়রকে। তারপর একটি গাড়ির পিছনে দড়ি দিয়ে বেঁধে ওই বেহাল রাস্তার উপর দিয়ে তাকে টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যাওয়া হয়। এই ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তেই ভাইরাল হয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের তোলা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একদল লোক মেয়রকে তার অফিস থেকে টেনে বের করছে এবং একটি গাড়ির পেছনে তাকে বেঁধে ফেলছে। পরে এক সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে হাত বাঁধা অবস্থায় গাড়িটি রাস্তা দিয়ে তাকে হিঁচড়ে টেনে নিয়ে যাচ্ছে। পরে পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে।

মেয়র এসক্যান্ডন বলছেন, হামলাকারীদের বিরুদ্ধে তিনি অপহরণ এবং হত্যা চেষ্টার মামলা দায়ের করবেন।

মেক্সিকোতে জনপ্রতিনিধিদের শাস্তি দেওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম নয়। এর আগে হুইক্সটন শহরের মেয়র হ্যাভিয়ার হিমেঞ্জ নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণে ব্যর্থ হওয়ায় তাকে মেয়েদের স্কার্ট পরিয়ে শহরে ঘোরান ক্ষুব্ধ বাসিন্দারা। তিনি শহরের পানি ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন করবেন বলে নির্বাচনের আগে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু ক্ষমতায় এসে সেটা করেননি।