শুদ্ধি অভিযান চলাকালে আবরারের নিষ্ঠুর হত্যাকান্ড জাতিকে ভাবিয়ে তুলেছে —দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরাম

দুর্নীতি মুক্তকরণ বাংলাদেশ ফোরামের কেন্দ্রীয় সভাপতি সিনিয়র আইনজীবী নাছির উদ্দিন, সিনিয়র সহ-সভাপতি ইকবাল হোসেন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মকসুদ হোসেন এক বিবৃতিতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) এর মেধাবী ও ধার্মিক আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে নিষ্ঠুর হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বাংলার ছাত্র সমাজের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ শুরু হয়েছে।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের ভিপি নূরকে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের নেতাদের দ্বারা বার বার শারীরিক আক্রমণের শিকার হয়েছেন। সরকার ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন এর প্রতিকার না করার ফলেই এই নিষ্ঠুর হত্যাকান্ড ঘটেছে বলে সচেতন মহল মনে করেন। শুদ্ধি অভিযান চলাকালে আবরারের এই নির্মম হত্যাকান্ড জাতিকে ভাবিয়ে তুলেছে। প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বলে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বের ১ হাজার বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় আজ আর নাম নেই। কাদের শাসনামলে বিশ্বের নামীদামী বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম আজ মুছে গেল, তা দেশপ্রেমিক ছাত্র নেতৃবৃন্দ ও বিশেষ করে বর্তমান ডাকসুর ভিপিসহ ডাকসু নেতৃবৃন্দকে চিহ্নিত করতে হবে এবং এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে।

ছাত্র রাজনীতি বন্ধের আওয়াজের ব্যাপারে নেতৃবৃন্দ বলেন, এই ছাত্র সমাজই স্বাধীনতা সংগ্রামসহ সকল দুঃশাসন দুর্নীতি ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে অতীতে ইস্পাত ঐক্য গড়ে তুলেছিল। ছাত্র রাজনীতি বিশ্বের নামীদামী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আছে। এমনকি প্রতিবেশী ভারত-পাকিস্তানেও আছে। ভারত-পাকিস্তানের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে দলীয় ইজম ও নেতা-নেত্রীর মুক্তির জন্য মিছিল-ধর্মঘট হয় না। যা হয় শিক্ষা সংক্রান্ত অধিকারের ব্যাপারে। অথচ বাংলাদেশে দলীয় ও নেতানেত্রীর ইজম বাস্তবায়নের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে ধর্মঘট হয়, অচল হয়। যা অত্যন্ত দুঃখজনক ও নিন্দনীয়।

কথাবার্তা পরিষ্কার, আবরার হত্যাকান্ডের নায়কদের অবিলম্বে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে মামলা ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করে বলেন, সময় এসেছে ছাত্র রাজনীতির নামে লেজুড় ভিত্তিক রাজনীতি ও শিক্ষকদের দলীয় রাজনীতি বন্ধের প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করা। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী গত বুধবার সংবাদ সম্মেলনে আবরার হত্যাকান্ডের প্রতিক্রিয়ায় তাঁর মূল্যবান বক্তব্যের প্রতি অভিনন্দন জ্ঞাপন করে বলেন, অনতিবিলম্বে ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের ভিতরে দুর্বৃত্ত ও সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত করে বহিষ্কার করার জোর দাবী জানান।