পাবজি খেলতে বাধা, বাবার মাথা কেটে নিল ছেলে

অনলাইন গেম পাবজি খেলতে বাধা দেয় বাবা। শুধু এই কারণে বাবাকে হত্যা করে কয়েক টুকরো করে ফেলেছে এক ছেলে। এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের কর্নাটকের বেলাগাভিতে।

ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, অভিযুক্ত ওই তরুণের নাম রঘুবীর কাম্বার (২৫)। নিহত শঙ্করাপ্পা কাম্বার (৬৫) একজন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য ছিলেন।

এফআইআর থেকে জানা যায়, পাবজি নেশা কাটাতে শঙ্করাপ্পা ছেলের মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়, রিচার্জ করেও দিচ্ছিলেন না। ঘটনার দিন বাবার সঙ্গে এ নিয়ে প্রচণ্ড তর্কাতর্কির পর অভিযুক্ত ওই ছেলে ধাক্কা মেরে মাকে বের করে দিয়ে ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করে দেয়। এরপরেই লম্বা ছুরি দিয়ে তার বাবাকে হামলা করে। সেসময় অভিযুক্ত ওই ছেলের মায়ের কান্না শুনে পাড়ার লোক ছুটে এলেও তারা শঙ্করাপ্পাকে বাঁচাতে পারেননি।

এরপর খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ। তারা ঘটনাস্থল থেকেই গ্রেফতার করে অভিযুক্তকে। রক্তাক্ত শঙ্করাপ্পাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় কিন্তু চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

দেশটির পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত ওই ছেলে তার বাবার মাথা কেটে ফেলে, তারপর হাত পাও আলাদা করে দেয়। গত রবিবার ঘটেছে এই ঘটনা।

জানা যায়, অভিযুক্ত রঘুবীর কাম্বার শঙ্করাপ্পা কাম্বারের একমাত্র সন্তান ছিলেন। এ ঘটনার তদন্ত চলছে বলে খবরে বলা হয়েছে। তথ্য সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে, এবিপি।