টাঙ্গাইলে প্রধানমন্ত্রী, কুমুদিনী কমপ্লেক্সে ৩১ প্রকল্প উদ্বোধন

ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মির্জাপুর কুমুদিনী কমপ্লেক্সে দানবীর রনোদা প্রসাদ সাহা স্বর্ণপদক হস্তান্তর এবং জেলায় ৩১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে দিনব্যাপী সফরে এখানে এসে পৌঁছেছেন। প্রধানমন্ত্রী বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টারে করে আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ১৫ মিনিটে কুমুদিনী কমপ্লেক্স হেলিপ্যাডে পৌঁছেন। এখানে পৌঁছার পরে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়।

পরে তিনি কুমুদিনী কমপ্লেক্স থেকে ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে ৩১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী কুমুদিনী কমপ্লেক্সে ‘দানবীর রনোদা প্রসাদ সাহা স্বর্ণ পদক’ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগ দেবেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট মেয়ে শেখ রেহানা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন। কুমুদিনী ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অব বেঙ্গল (বিডি) এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বাসস জানায়, কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের ৮৬ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিশিষ্ট ৪ ব্যক্তিকে ‘দানবীর রনদা প্রসাদ সাহা স্বর্ণ পদক’ প্রদান করা হবে।

বিশিষ্ট ব্যক্তিরা হলেন, কিংবদন্তীতূল্য রাজনৈতিক নেতা তদানিন্তন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী (মরণোত্তর), জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম (মরণোত্তর), নজরুল বিশেষজ্ঞ এবং গবেষক প্রফেসর রফিকুল ইসলাম এবং বিশিষ্ট চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দীন।

সোহরাওয়ার্দীর পক্ষে শেখ রেহানা প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে স্বর্ণ পদক গ্রহণ করবেন। জাতীয় কবি কাজী নজরুলের পক্ষে তাঁর নাতনী খিল খিল কাজী স্বর্ণ পদক গ্রহণ করবেন। প্রধানমন্ত্রীর সম্মানে ভারতেশ্বরী হোমসের শিক্ষার্থীরা বর্ণাঢ্য ডিসপ্লে প্রদর্শন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে। শেখ হাসিনা কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাস্টের ৮৬ বছর পূর্তি উদযাপন অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন।

টাঙ্গাইল সফর শেষে বিকেলে প্রধানমন্ত্রী রাজধানীতে ফিরবেন। প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার বিশাল পোর্টেট ছবি দিয়ে কুমুদিনী কমপ্লেক্স সুসজ্জিত করা হয়।