পৃথিবীর অস্হায়ী বাসিন্দা আমি

:: আলমগীর ::

 

কোন একদিন অনলাইনে আসা বন্ধ করে দিবো।
সব চাওয়া পাওয়া থামিয়ে রাখবো।
সব ব্যস্ততা ফুরিয়ে দিবো।
সকল আনন্দ চোঁখের সামনে খেলা করবে,
আর তখন আমি মাটির সাথে মিতালী করে হারিয়ে যাবো।

কাউকে শাসন করে কোনকিছু বলতে পারবোনা,
উল্টো কারো ধমক খেতে ও পারবনা,
কারন তখন হয়তো স্রষ্টার শাসনের বেড়াজালে আবদ্ব হয়ে থাকবো।

পৃথিবীর মানুষগুলোর দেওয়া সকল অবহেলা একদিন আমি ছুড়ে ফেলে দিয়ে যাবো ।
তখন কেউ আর আমায় অবহেলা করার সুযোগ ই পাবেনা।

কারো জন্যে দীর্ঘ শ্বাস নিতে পারবনা আবার কারো জন্যে আত্মচিৎকার
করতে ও পারবনা,
কারন তখন হয়তো জীবন প্রদীপ নিভে থমকে যাবে।

যে খাটে আরাম করে ঘুমিয়ে আছি,
আর পৃথিবীর অস্হায়ী সুখের স্বপ্নে বিভর হয়ে আছি,
সে স্বপ্ন একদিন থেমে যাবে।

সে দিন লোহার খাটে নিথর দেহ পড়ে থাকবে আর আপনজন কালিমা তায়িয়্যুব পাঠ করে ধীরে ধীরে বাঁশের সাজসজ্জা বিশিষ্ট ছোট ঘরে আমাকে রেখে আসবে।

তোমরা হয়তো সে দিন আমার জন্যে
কাদঁবে,
আর ফেইসবুকে সি মেমোরাইজ বলে আমার ছবিগুলো তোমাদের চোঁখে ভাসবে।
তখন হয়তো ছবিগুলো থাকবে
কিন্তু ছবির মানুষটি আর থাকবেনা।

প্রিয় বইগুলো সেল্ফে পড়ে থাকবে,
কম্পিউটারে মাকড়সার জ্বাল বেধে যাবে,
বালিশের পাশে তৈরি করা কবিতার খাতাটা মলিন হয়ে থাকবে,
রুমের কম্বল আর প্রিয় কোল বালিশটা পরিতক্ত্য হিসেবে রুমে পড়ে থাকবে
শুধু ঐ রুমের মানুষটা থাকবেনা।

তখন রুমের মালিকটা দাওয়াতবিহীন যমদূতের ডাকে সাড়া দিয়ে পরকালের জগতে পাড়ি জমাবে,

আর পৃথিবীর সকল অবিশ্বাসীদের কাছ হতে তখন আঘাত প্রাপ্ত সরল মন নিয়ে ওপারে পারি জমাবে,
তখন বিরামহীন ঘুম দিবো,
যে ঘুম কেউ ই চাইলে ভাঙাতে পারবেনা।