শনিবার ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাবে আড়াই কোটি শিশু

প্রতীকী ছবি

দেশের আড়াই কোটি শিশু শনিবার খাবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মোট ১ লাখ ২০ হাজার কেন্দ্র থেকে এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালিক এ তথ্য জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‌‘যে ভিটামিন খাওয়ানো হচ্ছে তা সম্পূর্ণ নিরাপদ। কোনো প্রকার গুজবে কান না দিয়ে ছয় মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াতে অভিভাবকদের আহ্বান জানানো হচ্ছে। ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুরা খাবে নীল ক্যাপসুল আর ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সীরা খাবে লাল রঙের ক্যাপসুল।’

তিনি বলেছেন, ‘এই দিনে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ২৫ লাখ ২৭ হাজার শিশুকে নীল রঙের একটি করে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। আর ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী প্রায় ১ কোটি ৯৫ লাখ ৭ হাজার শিশুকে লাল রঙের একটি করে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ‘কয়দিন আগে ভিটামিন এ ক্যাপসুলে কিছুটা ত্রুটি দেখা দেয়। তবে আমরা শিশুদের জন্য কোনো ঝুঁকি নিতে চাইনি। ফলে সেই ক্যাপসুলগুলো আর ব্যবহার করা হবে না। তবে এবারের ভিটামিন ক্যাপসুলে আর কোনো সমস্যা নেই।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ভিটামিন এ ক্যাপসুলে ত্রুটির ঘটনায় আমরা তদন্ত কমিটি গঠন করেছি। তারা একটি প্রতিবেদন জমা দিয়েছে, আমরা তা এখনও দেখিনি। তবে যারাই দোষী সাব্যস্ত হোক, তাদের শাস্তি পেতে হবে।’

ক্যাপসুলে সমস্যা সম্পর্কে জাহিদ মালেক বলেন, ‘ওই ভিটামিন ক্যাপসুল সাপ্লাইয়ে দেরি হওয়ায় এটা নিয়ে আদালতে মামলা হয়। মামলা নিষ্পত্তিতে প্রায় দেড় বছর লেগে যায়। তাতে এই ক্যাপসুল ড্যামেজ হয়ে যায়। তবে ক্যাপসুলের ভেতরে থাকা উপাদানের গুণগতমান ঠিক ছিল।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বাড়তি সতর্কতার জন্য আমরা ঝুঁকি নিতে চাইনি। তাই ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইন পেছানো হয়েছিল।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের মনে রাখতে হবে শিশুরা দেশের ভবিষ্যৎ। তাদের জন্য সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে।’

ভিটামিন এ ক্যাপসুল ক্যাম্পেইন দিবসে একটি শিশুও যেন বাদ না পড়ে সে জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, গত ১৯ জানুয়ারি ছিল ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইনের নির্ধারিত দিন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ভারতের একটি কোম্পানি থেকে আমদানিকৃত ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলের গুণগত মান নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় স্বাস্থ্য অধিদফতর কর্তৃপক্ষ ক্যাম্পেইন স্থগিত করে। এ ঘটনায় অধ্যাপক ডা. এনায়েতুর রহমানকে প্রধান করে গঠিত তদন্ত কমিটির তদন্ত শেষে প্রতিবেদন জমা দিযেছে কমিটি।